সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি কেমন

সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি কেমন

আমরা আজ এখানে আলোচনা করব বাংলাদেশের সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি কেমন। ব্যাংকের ১০ম গ্রেডে সাকুল্য বেতন কত হতে পারে। সরকারি ব্যাংকের চাকরির কোন গ্রেডের কত বেতন? সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি ইত্যাদি সম্পর্কে। চলুন বিস্তারিত জেনে নিই সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি কেমন।  সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন ভাতাদি। 

সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি এবং ব্যাংকের সংখ্যাঃ 

বাংলাদেশের ৬টি রাষ্ট্রায়ত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংক, ৪২টি বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক, ৩টি বিশেষায়িত ব্যাংক ও ৯টি বিদেশি ব্যাংকসহ বাংলাদেশে মোট তালিকাভুক্ত ব্যাংকের সংখ্যা ৬১টি এবং অ-তালিকাভুক্ত ব্যাংকের  সংখ্যা ৫টি থাকায় বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় জনপ্রিয় এবং সরকারি ব্যাংকগুলিতে চাকরি পাওয়া একটি কষ্টসাধ্য ব্যাপার। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, সোনালী ব্যাংক, জনতা ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক, রুপালী ব্যাংক, বেসিক ব্যাংক লিমিটেড এবং বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড সরকারি ব্যাংক। ডাচ বাংলা ব্যাংকের সারা দেশে প্রচুর এটিএম বুথ রয়েছে। অন্যদিকে, ইসলামিক ব্যাংক লিমিটেড,ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড ইত্যাদি এরকম বিখ্যাত ব্যাংকের তালিকাভূক্ত। তাই সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি কেমন এ সংক্রান্ত বিস্তারিত বিবরণ নিয়ে আমাদের এই বিশেষ আয়োজন।  তার আগে সোনালী, জনতা, অগ্রণী ব্যাংকের সুযোগ সুবিধা জানতে চাইলে এই পোস্ট পড়তে পারেন। সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন ভাতাদি কেমন।

সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি কেমন হতে পারেঃ 

এগুলিসহ আরো ব্যাংকের তালিকায় জনগণের পূর্ণ পরিষেবায় নিয়োজিত এনআরবি ব্যাংক, ইউনিয়ন ব্যাংক, মেঘনা ব্যাংক, এবং দক্ষিণ বাংলা কৃষি ও বাণিজ্য ব্যাংক অন্যতম। যে সকল চাকরি প্রার্থী ব্যাংকে চাকরী সন্ধানের চেষ্টা করছেন তাদের জন্য অন্যচাকরি করার পাশাপাশি এ সকল নতুন ব্যাংক নতুন কর্মসংস্থানের তৈরি করবে নিশ্চিতভাবে বলা যায়। গ্রাম অঞ্চলে বসবাসকারীদের জন্য মোবাইল ব্যাংকিং খুব জনপ্রিয় এবং সুবিধাজনক হয়ে উঠেছে। তাই যে সকল ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকের সেবা চালু আছে সে সকল ব্যাংকে চাকরি করার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া ভাল বলে মনে করি। সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি নিয়ে আমরা আলোচনা করছি। 

০১। স্পেশাল গ্রেড-

[ads1] বাংলাদেশের যেসকল ব্যাংক বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক পরিচালিত হয় সেসকল ব্যাংকে স্পেশাল গ্রেডের কর্মকর্তারা সরাসরি সরকার কর্তৃক নিয়োগপ্রাপ্ত হোন। বাংলাদেশ ব্যাংকের অধীনে থাকা কর্মকর্তাদের পদবী হয় গভর্নর ও ডেপুটি গভর্নর। আবার অন্যদিকে রাষ্ট্রায়াত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংকে নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের পদবী হয় চেয়ারম্যান ও ডিরেক্টর। স্পেশাল গ্রেডের কর্মকর্তারা সরকার কর্তৃক নিয়োগপ্রাপ্ত হওয়ায় নির্ধারিত বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী নির্দিষ্ট একটা বেতন পেয়ে থাকেন।

২। গ্রেড-০১  

[ads1] গ্রেড-০১ এর কর্মকর্তাদের ৭৮,০০০/- টাকা নির্ধারিত বেতন পেয়ে থাকেন। সরকারি ব্যাংকে গ্রেড-০১ কর্মকর্তাদের নিয়োগ নেই। তবে রাষ্ট্রায়াত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংকে “MD” পদ রয়েছে।

০৩। গ্রেড-০২

গ্রেড-০২ এর কর্মকর্তাদের বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী ৬৬,০০০/-৭৬,৪৯০/- টাকা বেসিক বেতন পেয়ে থাকেন। এঁরা Executive Director হিসেবে ভূষিত হোন। কিন্তু রাষ্ট্রায়াত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংকে DMD/GM পদ রয়েছে।

০৪। গ্রেড-০৩

বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী গ্রেড-০৩ এর কর্মকর্তাদের ৫৬,৫০০/-৭৪,৪০০/- টাকা বেসিক বেতন পেয়ে থাকেন। এ পদের কর্মকর্তারা GM পদবীতে ভূষিত হোন। তবে রাষ্ট্রায়াত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংকে DGM নামে পদ রয়েছে।

০৫। গ্রেড-০৪

বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী গ্রেড-০৪ এর কর্মকর্তাদের ৫০,০০০/-৭১,২০০/- টাকা বেসিক বেতন পেয়ে থাকেন। এ পদের কর্মকর্তারা DGM পদবীতে ভূষিত হোন।

আবার অন্যদিকে রাষ্ট্রায়াত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংকে AGM নামে পদ রয়েছে।

০৬। গ্রেড-০৫

বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী গ্রেড-০৫ এর কর্মকর্তাদের ৪৩,০০০/-৬৯,৮৫০/- টাকা বেসিক বেতন পেয়ে থাকেন। এ পদের কর্মকর্তারা JD (Join Director) পদবীতে ভূষিত হোন।

আবার অন্যদিকে রাষ্ট্রায়াত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংকে SPO (Senior Principal Officer) নামে পদ রয়েছে।

০৭। গ্রেড-০৬

বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী গ্রেড-০৬ এর কর্মকর্তাদের ৩৫,৫০০/-৬৭,০১০/- টাকা বেসিক বেতন পেয়ে থাকেন। এ পদের কর্মকর্তারা DD (Deputy Director) পদবীতে ভূষিত হোন।

আবার অন্যদিকে রাষ্ট্রায়াত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংকে PO (Principal Officer) নামে পদ রয়েছে।

০৮। গ্রেড-০৯

বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী গ্রেড-০৯ এর কর্মকর্তাদের ২২,০০০/-৫৩,০৬০/- টাকা বেসিক বেতন পেয়ে থাকেন। এ পদের কর্মকর্তারা AD (Assistant Director) পদবীতে ভূষিত হোন। Senior Officer থেকে Assistant Director পদে পদোন্নতি রয়েছে। এ সংক্রান্ত একটি পোস্ট রয়েছে দেখতে পারেন। আবার অন্যদিকে রাষ্ট্রায়াত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংকে SO (Senior Officer) নামে পদ রয়েছে।

০৯। গ্রেড-১০

বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী গ্রেড-১০ এর কর্মকর্তাদের ২২,০০০/-৫৩,০৬০/- টাকা বেসিক বেতন পেয়ে থাকেন। এ পদের কর্মকর্তারা AD (Assistant Director) পদবীতে ভূষিত হোন। Senior Officer থেকে Assistant Director পদে পদোন্নতি রয়েছে। এ সংক্রান্ত একটি পোস্ট রয়েছে দেখতে পারেন। আবার অন্যদিকে রাষ্ট্রায়াত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংকে SO (Senior Officer) নামে পদ রয়েছে। [ads1]

বেতন স্কেল- ২০১৫ অনুযায়ী মূল বেতন/ বেসিক বেতন, মাসিক বাড়ি ভাড়া ও চিকিৎসা ভাতাঃ

ক) ঢাকা সিটি কর্পোরেশন এলাকার জন্য ব্যাংক কর্মকর্তার বেসিক বেতন ১৬,০০০/- তাদের জন্য মূল বেতনের ৬০% ভাতা, তবে রাজশাহী, রংপুর, সিলেট, খুলনা, চট্টগ্রাম, বরিশাল, নারায়ণগঞ্জ, ও গাজিপুর সিটি কর্পোরেশন এবং সাভার পৌর এলাকার জন্য মূল বেতনের ৫০% অতিরিক্ত ভাতা এবং বাংলাদেশের অন্যান্য এলাকার জন্য ৪৫% অতিরিক্ত ভাতা পাবেন। উল্লেখ্য যে, ১৬,০০০/- বেসিক বেতনের কর্মকর্তারা সকলেই মাসিক ১,৫৫০/- টাকা চিকিৎসা ভাতা পাবেন ব্যাংকের কর্মকর্তারা।

খ) ঢাকা সিটি কর্পোরেশন এলাকার জন্য যেসব ব্যাংক কর্মকর্তার বেসিক বেতন ১৬,০০০/-২২,০০০/- তাদের জন্য মূল বেতনের ৫৫% ভাতা, তবে রাজশাহী, রংপুর, সিলেট, খুলনা, চট্টগ্রাম, বরিশাল, নারায়ণগঞ্জ, ও গাজিপুর সিটি কর্পোরেশন এবং সাভার পৌর এলাকার জন্য মূল বেতনের ৫০% অতিরিক্ত ভাতা এবং বাংলাদেশের অন্যান্য এলাকার জন্য ৪০% অতিরিক্ত ভাতা পাবেন। উল্লেখ্য যে, ১৬,০০০/-২২,০০০/- বেসিক বেতনের কর্মকর্তারা সকলেই মাসিক ১,৫৫০/- টাকা চিকিৎসা ভাতা পাবেন ব্যাংকের কর্মকর্তারা। [ads1]

Read More :   মৎস্য অধিদপ্তরের অফিস সহকারী প্রশ্ন সমাধান ২০২২

গ) ঢাকা সিটি কর্পোরেশন এলাকার জন্য যেসব ব্যাংক কর্মকর্তার বেসিক বেতন ২৫,৫০১/- হতে বেশি তাদের জন্য মূল বেতনের ৫০% ভাতা, তবে রাজশাহী, রংপুর, সিলেট, খুলনা, চট্টগ্রাম, বরিশাল, নারায়ণগঞ্জ, ও গাজিপুর সিটি কর্পোরেশন এবং সাভার পৌর এলাকার জন্য মূল বেতনের ৪০% অতিরিক্ত ভাতা এবং বাংলাদেশের অন্যান্য এলাকার জন্য ৩৫% অতিরিক্ত ভাতা পাবেন। উল্লেখ্য যে, ২৫,৫০১/- হতে বেশি বেতনের কর্মকর্তারা সকলেই মাসিক ১,৫৫০/- টাকা চিকিৎসা ভাতা পাবেন ব্যাংকের কর্মকর্তারা।

সবার জন্য একটি বিষয় পরিষ্কার করা দরকার আর সেটা হলো একজন ব্যাংক কর্মকর্তা বেসিক বেতন+ বেসিক × (শতকরা হিসেবে বাড়ি ভাড়া) + চিকিৎসা ভাতা হিসেবে বেতন পাবেন।

এখন আমরা দেখব যে ঢাকা সিটি কর্পোরেশন এলাকার জন্য যেসব ব্যাংক কর্মকর্তার বেসিক বেতন ১৬,০০০/- তার জন্য মোট বেতন কত হবে। ১৬,০০০ + ৯,৬০০ (৬০%) + ১৫৫০= ২৭,১৫০/- বেতন পাবেন। 

সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি এবং সরকারি ব্যাংকের বেতন কাঠামোঃ 

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, সরকারি ব্যাংকের নতুন বেতন কাঠামো অনুযায়ী একজন মহাব্যবস্থাপকের (জিএম) প্রারম্ভিক মূল বেতন ধরা হয়েছে ৫২ হাজার টাকা, বর্তমানে এই পদে শুরুতে মূল বেতন ৩৩ হাজার ৫০০ টাকা। নতুন স্কেলে একজন উপ-মহাব্যবস্থাপকের (ডিজিএম) প্রারম্ভিক মূল বেতন ধরা হয়েছে ৪২ হাজার টাকা, এখনকার স্কেলে তিনি মূল বেতন পাচ্ছেন ২৯ হাজার। একজন সহকারী মহাব্যবস্থাপকের (এজিএম) প্রস্তাবিত স্কেলে প্রারম্ভিক মূল বেতন ধরা হয়েছে ৩৪ হাজার টাকা, বর্তমান স্কেলে তিনি মূল বেতন পাচ্ছেন ২৫ হাজার ৭৫০ টাকা। একজন সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসারের (এসপিও) প্রারম্ভিক মূল বেতন নির্ধারণ করা হয়েছে ২৬ হাজার টাকা, বর্তমান স্কেলে মূল বেতন পাচ্ছেন ২২ হাজার ২৫০ টাকা। একজন সিনিয়র অফিসারের (এসও) প্রারম্ভিক মূল বেতন প্রস্তাবিত স্কেলে ধরা হয়েছে ১৬ হাজার টাকা, বর্তমান স্কেলে মূল বেতন পাচ্ছেন ১১ হাজার টাকা।

সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি

একজন অফিসারের প্রারম্ভিক মূল বেতন হবে ১৩ হাজার টাকা, বর্তমান স্কেলে তিনি মূল বেতন পাচ্ছেন ৮ হাজার টাকা।একজন জুনিয়র অফিসারের (শিক্ষানবিশ) অবস্থায় প্রারম্ভিক মূল বেতন হবে ১০ হাজার টাকা, বর্তমান স্কেলে রয়েছে ৬ হাজার ৪০০ টাকা।সহায়ক কর্মচারীর (গ্রেড-১) প্রারম্ভিক মূল বেতন হবে ৮ হাজার টাকা, বর্তমানে আছে ৪ হাজার ৭০০ টাকা। সহায়ক কর্মচারীর (গ্রেড-২) প্রারম্ভিক মূল বেতন হবে ৬ হাজার ৫০০ টাকা, বর্তমানে আছে ৪ হাজার ১০০ টাকা। সাধারণ কর্মচারীদের প্রারম্ভিক মূল বেতন হবে ৫ হাজার টাকা।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বেতন স্কেল একটু আলাদা হবে। এছাড়া ভাতাও তাদের জন্য আলাদা হবে।কেন্দ্রীয় ব্যাংকসহ বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর শীর্ষ পর্যায়ে নির্বাহীরা প্রস্তাবিত বেতন স্কেলে বেতন পাবেন না। তাদের জন্য আলাদা কাঠামো হবে। এদের নিয়োগ যেহেতু চুক্তির ভিত্তিতে হয়, সে কারণে প্রত্যেকের সঙ্গে আলাদাভাবে কথা বলার সময় বেতন কাঠামো চূড়ান্ত করা হবে।

Read More :   সহকারী লোকোমোটিভ মাস্টার প্রশ্ন ২০২৪ উত্তর সমধান সহ

সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি

[ads1] আমরা আজ এখানে আলোচনা করেছি বাংলাদেশের সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি কেমন। ব্যাংকের ১০ম গ্রেডে সাকুল্য বেতন কত হতে পারে। সরকারি ব্যাংকের চাকরির কোন গ্রেডের কত বেতন? পরিশেষে বলতে পারি বাংলাদেশের ব্যাংক কর্মকর্তারা চাকুরিরত অবস্থায় সরকারের বিভিন্ন ফান্ড থেকে নিত্য নৈমিত্তিক ভাতা পেয়ে থাকেন। সরকারি ব্যাংকের স্কেলসহ বেতন-ভাতাদি এতক্ষণে বিশদভাবে বর্ণনা করা হল। এখানে যেকোন প্রকার ভুলত্রুটি মন থেকে মার্জনীয়। এখানে উপস্থাপিত তথ্য ব্যাংকের ওয়েবসাইট থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। বর্তমান বাজারের নিত্য পণ্যের দামের দিক থেকে বিচার করতে বেতন কারো কারো কম বেশি হতে পারে। অথবা সরকার পে স্কেল ঘোষণা করলে তখন বেতনের বিস্তর পার্থক্য ঘটবে। তখন বেতনের সবদিক নতুনভাবে বিশ্লেষণ করা হবে। ধন্যবাদ সকলকে।

Read More :   চাকরির জন্য কম্পিউটার বিষয়ক প্রশ্ন ও উত্তর ১০০ টি (প্রথম পর্ব)
bangladikpal logo favicon
Nihalbdc