অভিজ্ঞতা ছাড়া চাকরি ২০২২ | বিনা অভিজ্ঞতায় চাকরি ২০২২

সুপ্রিয় চাকরি প্রার্থী বন্ধুরা, সবাই কেমন আছেন? আশা করি আল্লাহর রহমতে সবাই ভালই আছেন। আজ আপনাদের সামনে ​অভিজ্ঞতা ছাড়া চাকরি ২০২২ | বিনা অভিজ্ঞতায় চাকরি ২০২২ সে সম্পর্কে গোপনীয় টেকনিক আলোচনা করব। [ads1]

অভিজ্ঞতা ছাড়া চাকরি ২০২২ | বিনা অভিজ্ঞতায় চাকরি ২০২২

অভিজ্ঞতা ছাড়াই চাকরি পাওয়ার অন্তরায় কি?

[ads1] আজকাল দেখা যায় যে বেশির ভাগ চাকরি প্রার্থীর মধ্যে কাজ করার অভিজ্ঞতা থাকেনা। এটাই স্বাভাবিক যে অনেকের মধ্যে এমন অভিজ্ঞতা থাকার কথা না। কারণ, পড়াশুনা করা আর পড়াশুনা শেষ করে চাকরি পাওয়া যায় কিন্তু চাকরি পেতে যে অভিজ্ঞতা লাগে সেটা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শেখানো হয়না। আর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শেখাবেই বা কেন? শিক্ষা মন্ত্রণালয় বা সরকারের ঊর্ধ্বতন মন্ত্রণালয় অভিজ্ঞতা সংক্রান্ত কোনো কিছু শেখানোর জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কখনো কোনোদিন তাগিদ দেওয়া হয়না।
তাই স্বভাবতই এটা ভেবে নেওয়া হয় যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অভিজ্ঞতার সার্টিফিকেট পাওয়া যায়না। তাই অভিজ্ঞতা ছাড়াই চাকরি পাবার প্রধান অন্তরায় হলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বা যেকোন ট্রেনিং সেণ্টার কখনো কোনো ব্যাক্তিকে অভিজ্ঞতা অর্জনের শিক্ষা দেন না।

অভিজ্ঞতা ছাড়াই চাকরি এর ধরণঃ

[ads1] দেশে প্রচলিত কিছু কিছু অভিজ্ঞতা ছাড়াই চাকরি আছে যা সরকারের ২০ টি গ্রেডের মধ্যে সর্বনিম্ন গ্রেডের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত। সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য চারটি শ্রেণি রয়েছে যেমন, ১ম, ২য়, ৩য় এবং ৪র্থ শ্রেণি।
  • ১ম শ্রেণি- ১ম থেকে ৯ম গ্রেড।
  • ২য় শ্রেণি- ১০ম থেকে ১২ তম গ্রেড।
  • ৩য় শ্রেণি- ১৩ তম থেকে ১৬ তম গ্রেড।
  • ৪র্থ শ্রেণি- ১৭ তম থেকে ২০ তম গ্রেড।
যেসব গ্রেড ৯ম গ্রেড থেকে তদূর্ধ্ব সেসব গ্রেডে অভিজ্ঞতা ছাড়াই চাকরি পাওয়া যায় তবে সরকারি যেসব চাকরি টেকনিক্যাল রয়েছে সেসব চাকরিতে অভিজ্ঞতা ছাড়া চাকরি পাওয়া বড়ই দুষ্কর। যেমন, বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশন বা পিএসসির অধীনে নন ক্যাডার নিয়োগের জন্য অভিজ্ঞতা ছাড়াই অনেক সার্কুলার প্রকাশিত হয়। আবার অন্যদিকে যেসব চাকরির জন্য অনার্স বা তদূর্ধ্ব পাশ রয়েছে তাদের জন্য অভিজ্ঞতা ছাড়াই চাকরি এর ব্যবস্থা করেছে এ সরকার।
পিএসসির অধীনে বাংলাদেশের সবচেয়ে মানসম্মত চাকরি হলো বিসিএস ক্যাডার। বিসিএস ক্যাডারের অধীনে বর্তমানে ২৬ টি ক্যাটাগরিতে বিনা অভিজ্ঞতায় চাকরি পাওয়া যায়। এখানে চাকরি পেতে হলে শুধু মেধার দরকার। বিসিএস ক্যাডার ছাড়াও অন্যান্য প্রথম শ্রেণির চাকরি গুলোতেও অভিজ্ঞতা ছাড়াই চাকরি পাওয়া সম্ভব কিন্তু সরকারের কিছু টেকনিক্যাল সেক্টর রয়েছে যেখানে বিনা অভিজ্ঞতায় আবেদন করা যায়না।

অভিজ্ঞতা ছাড়াই চাকরি পাওয়ার কলা কৌশলঃ

[ads1] অভিজ্ঞতা ছাড়াই চাকরি পাওয়ার অনেক কলা কৌশল রয়েছে। অনেকে অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে যেকোন ভালমানের চাকরি পেয়ে যায় কিন্তু বেশির ভাগ চাকরি প্রার্থীদের চাকরি পাওয়ার কোনো অভিজ্ঞতা থাকেনা। ​নিচে কিছু অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করলাম যা মেনে চললে আপনি বিনা অভিজ্ঞতায় চাকরি পেতে পারেন। 

আত্মবিশ্বাসীর গুরুত্বঃ

[ads1] যেকোন কাজ করতে আপনাকে সর্বপ্রথম আত্নবিশ্বাসী হতে হবে। আপনি যদি আত্নবিশ্বাসী​ না হোন তাহলে কোন চাকরিই পাবেন না, কারণ আত্নবিশ্বাসী ​আপনাকে যেকোন ভালমানের চাকরি পেতে সাহয্য করবে। সততা ও আত্তানবিশ্ইবাস দিয়ে আপনাকে চাকরি যোগাড় করতে হবে। আত্নবিশ্বাসী ​হওয়া অনেক জরুরি। ​

কাজকে গুরুত্ব দেওয়াঃ

যেকোনো চাকরি পেতে হলে আপনাকে সর্বপ্রথম কাজকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে​​। কারণ আপনি যদি আপনার কাজকে গুরুত্ব না দেন তাহলে কোনো প্রতিষ্ঠান আপনাকে চাকরি দেবে না। আপনাকে প্রতিষ্ঠান হেয় মনে করবে। কারন আপনার অনভিজ্ঞতায় আপনার চাকরির অন্তরায়। তাই আপনি যে চাকরিটা পেতে কত পাগল আর এই প্রতিষ্ঠানের কাজকে কত ভালবাসেন সেটা ভাইভা বোর্ডকে বুঝিয়ে দিন তাহলে সহজেই চাকরি পেয়ে যাবেন।

আগ্রহ প্রকাশের তীব্র ক্ষমতাঃ

[ads1] ভাইভা বোর্ডেই নিজেকে আলাদাভাবে উপস্থাপন করতে হবে। যেন আপনার থেকে অন্যদের যেন খারাপ চোখে দেখে এবং এখানেই যেন আপনাকে পছন্দ করে ফেলে যে আপনি চাকরি পেয়ে গেছেন শুধু নিজেকে আলাদাভাবে উপস্থাপন করার জন্য। তাই একটা চাকরি পাওয়ার জন্য আপনাকে অনেক আগ্রহ দেখাতে হবে। আপনাকে ভাইভা বোর্ডকে বুঝাতে হবে যে আপনি চাকরি পাওয়ার জন্য কতটা উদগ্রীব কতটা পাগল হয়ে আছেন। মনে রাখবেন টাকা​ বেতনকে​ যেন ​আপনি টার্গেট করবেন না এবং বেতন, ছুটি, সুযোগ-সুবিধা সম্পর্কে খুব দ্রুতই জানতে চাইবেন না

যে কোনো সুপারিশের অপেক্ষায় না থাকাঃ

[ads1] অভিজ্ঞতা ছাড়া চাকরির পাওয়ার অন্যতম অন্তরায় হলো কারো কোনো সুপারিশের অপেক্ষায় না থাকা। যদি কেউ আপনার সুপারিশ করে তাহলে আপনি অভিজ্ঞ হলেও চাকরিটা পেয়ে যাবেন। কিন্তু আপনি যেহেতু অনভিজ্ঞ তাই আপনার পক্ষ থেকে কাউকে আপনার জন্য সুপারিশ করতে দেবেন না। নিজেকে আত্ননির্ভর করে ভাইভা বোর্ডে হাজির হবেন এবং নিজের উপর পূর্ণ আস্থা রাখবেন।

অনভিজ্ঞতাকে সহজভাবে মেনে নেওয়াঃ

বিনা অভিজ্ঞতায় চাকুরি পাওয়ার অন্যতম শর্ত হলো আপনার অনভিজ্ঞতাকে সহজভাবে মেনে নেওয়ার প্রবনতা বাড়ারে হবে। কারণ যেহেতু আপনার কোনো অভিজ্ঞতা নেই তাই ভাইভা বোর্ডে বেশি পণ্ডিতগিরি না খাটিয়ে অনভিজ্ঞতাকে সহজভাবে মেনে, কাকুতি মিনতি করে নিজেকে উপস্থাপন করতে হবে। তাই চাকরি প্রার্থী যদি নিজের অনভিজ্ঞতাকে সহজভাবে মেনে নেয় তাহলে ​অভিজ্ঞতা ছাড়াই চাকরি পাওয়া যায় এটা সহজভাবে বলা যায়। 

চাকরিক্ষেত্র গবেষণা করতে শিখুনঃ

বর্তমান প্রেক্ষাপটে অভিজ্ঞতা ছাড়া চাকরি পাওয়া অনেক কঠিন। ছাত্রজীবন থেকেই চাকরির ক্ষেত্রগুলি বিচার বিশ্লেষণ করতে শিখুন। কারণ আপনার যেহেতু চাকরি করার পূর্বে কোনো অভিজ্ঞতা নেই তাই চাকরি এবং কর্মক্ষেত্র সম্পর্কে বিচার বিশ্লেষণ করুন।
Read More :   বর্তমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির যুগে আপনার জীবনে কোন চাকরি পারফেক্ট বা উপযুক্ত?